শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ও গুরুচাঁদ ঠাকুর সমাজ সংস্কারক হিসেবে পিছিয়ে পড়া ও অবহেলিত মানুষের জন্য শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করেছে — হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি।


বন্ধন টিভি ডেস্ক
প্রকাশের সময় : মার্চ ১৮, ২০২২, ২:১১ অপরাহ্ণ / ১৪৪
শ্রীশ্রী হরিচাঁদ ও গুরুচাঁদ ঠাকুর সমাজ সংস্কারক হিসেবে পিছিয়ে পড়া ও অবহেলিত মানুষের জন্য শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করেছে — হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি।

বটিয়াঘাটা প্রতিনিধি:
জাতীয় সংসদের হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি বলেছেন, শ্রী শ্রী হরিচাঁদ— গুরুচাঁদ ঠাকুর সমাজ সংস্কারক হিসেবে অজ্ঞ ও নিষ্পেষিত সাধারণ মানুষের শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করে। পাশাপাশি নামামৃত ও মতুয়া দর্শন প্রচারের মাধ্যমে সমাজের সামাজিক শিক্ষা ও ধর্মীয় জ্ঞান লাভের সঞ্চার ঘটিয়েছিলেন। যা সমাজের নিষ্পেসিত, বঞ্চিত সাধারণ মানুষদেরকে সঠিক পথে চলার আজও অনুপ্রেরণা যুগিয়ে চলেছে। এমনকি তাঁরা সমাজের পিছিয়ে থাকা মানুষের জন্য কাজ করে হরিনামামৃত মতুয়া দর্শন অতি সহজেই ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছেন। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার একটি অসাম্প্রদায়িক সরকার। যে কারনে কোন প্রকার বাঁধা—বিঘ্ন ছাড়াই যাঁর যাঁর ধর্ম নির্বিঘ্নে পালন করতে পারছে। যারই প্রতিফলন আজকের এ দর্শণ ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে। তিনি গতকাল শুক্রবার বিকাল ৫ টায় বটিয়াঘাটা উপজেলার জলমা ইউনিয়নের স্থানীয় গুপ্তমারী শ্রীশ্রীগুরুচাঁদ ঠাকুরের ১৭৬ তম জন্মজয়ন্তী ও মতুয়া মহাসম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা গুলি বলেন। অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ মতুয়া মহাসঙ্ঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মতুয়াচার্য শ্রীশ্রী সুব্রত ঠাকুর । সমাজ সেবক প্রাণ গোপাল বৈরাগীর সভাপতিত্বে ও জেলা মতুয়া মহাসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক অনুপম টিকাদার এবং তুলসী দাস মালাকারের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ মতুয়া মহাসঙ্ঘের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মতুয়াচার্য শ্রীমৎ সাগর সাধু ঠাকুর। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সচিব ও শ্রীশ্রী গুরুচাঁদ স্মৃতি ট্রাস্টের উপদেষ্টা ড. প্রশান্ত কুমার রায, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই গাইন, সাসটেইনেবল কোস্টাল এন্ড মেরিন ফিশারিজ প্রজেক্টের উপ—প্রকল্প পরিচালক সরোজ মিস্ত্রী, শ্রীমৎ নিরাপদ গোস্বামী, সাবেক খুলনা বিভাগীয় প্রধান এ্যানেস্থেশিয়া ডাঃ সুধাংশু শেখর মালাকার, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রতাপ ঘোষ, ইউপি চেয়ারম্যান বিধান রায়। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রজিৎ টিকাদার, কেন্দ্রীয় মতুয়া মহাসঙ্ঘের নেতা রতন কুমার মিত্র, প্রশান্ত কুমার মন্ডল, শান্তি রাম দত্ত, এ্যাডভোকেট সন্দীপ রায়, বীরমুক্তিযোদ্ধা নিরঞ্জন কুমার রায়, প্রশান্ত কুমার হালদার, ডাঃ তারিনী কান্তি মন্ডল, আ’লীগ নেতা রাজ কুমার রায়, গোবিন্দ মল্লিক, বিধান হালদার, নারায়ন চন্দ্র রায়, শ্রীশ্রী গুরুচাঁদ স্মৃতি ট্রাস্টের উপজেলা সভাপতি অধ্যাপক পঞ্চানন মন্ডল, রঞ্জন কুমার মিস্ত্রী, জলমা ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান পার্থ রায় মিঠু, ইউপি সদস্য অশোক কুমার মন্ডল, সংরক্ষিত ইউপি সদস্যা তপতী রাণী বিশ্বাস, সাবেক ইউপি সদস্য বিপ্রদাস টিকাদার কার্তিক, রানার গ্রুপের সভাপতি প্রদীপ হীরা ও সাধারণ সম্পাদক নৃপেন বিশ্বাস, যুবলীগ নেতা বিশ্বজিৎ সরকার, অমরেশ বকসী, গৌতম রায়,ি হন্দু যুব—মহাজোটের যুগ্ম—আহ্বায়ক সবুজ মিস্ত্রী, সুপ্রিয় রায় প্রমূখ । অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হাজার হাজার মতুয়াচার্য ও মতুয়া ভক্তবৃন্দ উপস্থিত হন। এ সময় জয় ডাঙ্কা বাদ্যযন্ত্র ও উলুধ্বনিতে এলাকা প্রকম্পিত হয়ে উঠে।

Spread the love
Link Copied !!