সেই পোশাক শ্রমিক তরুণ এখন দক্ষিণি সুপারস্টার


টি আই শাহীন
প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৬, ২০২২, ৯:৪৯ অপরাহ্ণ / ২০
সেই পোশাক শ্রমিক তরুণ এখন দক্ষিণি সুপারস্টার

ভারতীয় চলচ্চিত্রে স্বজনপ্রীতি নিয়ে কয়েক বছর ধরে চলছে নানা বিতর্ক। হিন্দি সিনেমা তো বটেই, স্বজনপ্রীতি বিতর্কের উত্তাপ ছড়িয়েছে দক্ষিণ ভারতের চলচ্চিত্রজগতেও। তবে স্বজনপ্রীতি নিয়ে সাম্প্রতিক বিতর্কের অনেক আগে থেকেই এ নিয়ে সচেতন ছিলেন সর্বনন শিবকুমার, যিনি জনপ্রিয় তামিল অভিনেতা শিবকুমারের সন্তান। বড় হয়ে অবশ্য চলচ্চিত্র নয়, সর্বনন চাকরি নেন রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানায়। অফিসের সহকর্মী তো বটেই, তাঁর বসকেও জানতে দেননি, তিনি শিবকুমারের সন্তান। চাইলে তো আর চেপে রাখা যায় না, একসময় ঠিকই সত্যিটা সামনে আসে। তত দিনে সর্বননের চলচ্চিত্রে অভিনয় নিয়ে আলাপ-আলোচনাও শুরু হয়। ১৯৯৭ সালে তো ‘নেরুক্কু নের’ দিয়ে চলচ্চিত্রে অভিষেকই হলো। তবে সর্বনন শিবকুমার হিসেবে নয়, পর্দায় নাম দেওয়া হলো সুরিয়া। নামটা দেন ছবির প্রযোজক মণি রত্নম।

সুরিয়া নামটা পরিচালক মণি রত্নমের ভক্তদের কাছে খুব চেনা থাকার কথা। কারণ, মণি রত্নমের ছবিতে প্রায়ই সুরিয়া নামের চরিত্র থাকে। ‘নেরুক্কু নের’ ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৭ সালের ৬ সেপ্টেম্বর। সে হিসেবে আজ চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের ২৫ বছর পূর্ণ হলো এই তামিল অভিনেতার। দুই যুগের বেশি সময়ে শৈল্পিক ও বাণিজ্যিক ঘরানার ছবিতে বৈচিত্র্যময় চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে। কখনো তিনি পাশের বাড়ির ছেলে, কখনো পুরো মাত্রার বাণিজ্যিক ছবিতে গণমানুষের নায়ক, কখনো দাপুটে সেনা কর্মকর্তা। নানা চরিত্রের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার এই দক্ষতার কারণে সুরিয়া হয়ে উঠেছেন এই সময়ের ভারতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অভিনেতা। চলতি বছর সেরা অভিনেতা হিসেবে পেয়েছেন ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও।

ক্যারিয়ারের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে টুইটারে এক প্রতিক্রিয়ায় ভক্তদের ধন্যবাদ দিয়ে অভিনেতা লিখেছেন, ‘২৫ বছরের এই যাত্রায় আপ্লুত। স্বপ্ন ও বিশ্বাস…। আপনাদের সুরিয়া।’ ‘নানধা’, ‘কাখা কাখা’, ‘গজনি’, ‘সিংহাম’ ট্রিলজি, ‘৩৬ ভায়াধিনিলে’–এর মতো ছবি করলেও অভিনেতা সুরিয়া নতুন করে নিজের জাত চিনিয়েছেন ২০২০ সালে। মহামারির সময় সরাসরি ওটিটিতে মুক্তি পায় তাঁর ছবি ‘সুরারাই পোতরু’। এই ছবি দিয়ে পুরো ভারতজুড়ে ব্যাপকভাবে পরিচিতি পান। অনেক সমালোচকের মতে, সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ছবিটিতে ক্যারিয়ার–সেরা অভিনয় উপহার দেন এই অভিনেতা। এই চলচ্চিত্রের জন্যই চলতি বছর অজয় দেবগনের সঙ্গে যৌথভাবে সেরা অভিনেতার পুরস্কার পান সুরিয়া। বলা হয়, ছবিটি তাঁর ক্যারিয়ারের নতুন যাত্রার শুরুও।

কারণ, ‘সুরারাই পোতরু’র পর একের পর ব্যবসাসফল ও আলোচিত ছবি উপহার দেন সুরিয়া, যার মধ্যে আসবে ‘ইথারকুম থুনিনথাবান’-এর কথা। মুক্তির মাত্র ৫ দিনে ১০০ কোটি রুপি ব্যবসা করেছে ছবিটি। বলতে হবে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত ‘জয় ভীম’-এর কথাও। চলতি বছর ৪০০ কোটির বেশি ব্যবসা করা ‘বিক্রম’-এর খল চরিত্রে স্বল্প সময়ের উপস্থিতিতেও চমকে দেন সুরিয়া। এত সাফল্যে স্বাভাবিকভাবেই একের পর এক ছবির প্রস্তাব পাচ্ছেন, যার অনেকগুলোই বড় বাজেটের। এর মধ্যে একটি ‘বানানগান’-এর শুটিং করছেন এখন।

নায়ক ছাড়াও প্রযোজক হিসেবেও সফল সুরিয়া। ২০১৫ সালের পর প্রযোজক হিসেবে যুক্ত হন ‘৩৬ ভায়াধিনিলে’, ‘টোয়েন্টিফোর’, ‘সুরারাই পোতরু’, ‘জয় ভীম’-এর মতো ছবিতে। ২০০৬ সালে জনপ্রিয় অভিনেত্রী জ্যোতিকাকে বিয়ে করেন সুরিয়া। দুজন একসঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয়ও করেছেন।

 

(সংকলিত)

 

 

 

Spread the love
Link Copied !!