বান্দরবানে ১২টি অবৈধ ইটভাটাকে অর্থদন্ড ও বন্ধের নির্দেশ


বন্ধন টিভি ডেস্ক
প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২২, ২:৩১ অপরাহ্ণ / ১৪৬
বান্দরবানে ১২টি অবৈধ ইটভাটাকে অর্থদন্ড ও বন্ধের নির্দেশ

বান্দরবানঃ বান্দরবানে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নে ১১টি  অবৈধ ইটভাটা ও আলীকদম উপজেলায় ১টি  ইটভাটাকে অর্থদন্ড ও বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এ সময় ফাইতং ইউনিয়নের ১১টি অবৈধ ইটভাটার চৌদ্দ লক্ষ ও আলীকদম উপজেলার ১টিতে ২ লক্ষ টাকা জরিমানা করানো হয়।

বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কায়েসুর রহমানের  নেতৃত্বে এ অভিযান চালায়।
এ সময় পরিবেশ অধিদপ্তর কর্মকর্তা, পুলিশ প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস এর সদস্যদের সহযোগীতায় ফাইতং এলাকার ১১টি ইটভাটাতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।

ইটভাটাগুলোর সারিবদ্ধ করে রাখা কাঁচা ইটগুলো স্ক্যাভেটরের সাহায্যে সম্পূর্ণ ভেঙে ফেলা হয়। তারই সাথে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ইটভাটার আগুন নিভিয়ে দেন। এ ছাড়া জেলা প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী দুই উপজেলায় সাইনবোর্ড টাঙিয়ে মোট ১২টি  ইটভাটার সব কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট কায়েসুর রহমান জানান,গত ২৫/০১/২০২২ইং তারিখের মহামান্য  হাইকোর্ট বিভাগের  রিট পিটিশন নম্বর ১২০৪/২০২২ এর  আদেশ মোতাবেক পার্বত্য এলাকার অবৈধ ইটভাটাগুলোকে বন্ধ করার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সেই নির্দেশ অনুযায়ী আজকে লামার ফাইতং ইউনিয়নে ১১টি  ও আলীকদম উপজেলায় ১টি অবৈধ ইটভাটা এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।
তিনি আরো জানান, উল্লিখিত ইটভাটাগুলো জেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের  ছাড়পত্র বিহীন, নিয়মের বাইরে  নিষিদ্ধ এলাকায় পাহাড়ের পাদদেশে পরিচালিত হচ্ছিল। যা পরিবেশের জন্য ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।  তাই ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইনের  ধারা লঙ্ঘনের কারণে অবৈধ ইটভাটাগুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

অভিযানে ফাইতং ইউনিয়নের এস বি ডব্লিউ,  এফ এস সি, ই বি এম, এস বি এম সহ ১১টি ইটভাটাকে অবৈধ হিসেবে চিহ্নিত করে নগদ অর্থদন্ড সহ বন্ধের নির্দেশ দেন বান্দরবান জেলা প্রাশাসন।

লামার ফাইতং ইউনিয়নে মোট ইটভাটা রয়েছে ২৮টি।অবৈধভাবে চলছে ১১টি। বাকি ১৭ টি হাইকোর্টে রিট আছে বলে জানান, ফাইতং ইট ভাটা মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মোক্তার আহম্মদ।

ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মোক্তার আহম্মদ আরো জানান, হাইকোর্টের আদেশের পরিপ্রক্ষিতে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান অভিযানকে সম্মান জানায়। পার্বত্যঞ্চলে ইটভাটা স্থাপনের আইনকে আরেকটু সংশোধন করে ইটভাটা  স্থাপনের সুযোগ করে দেয়ার অনুরোধ জানান। যাতে এখানকার গরীব দুঃখী, বেকাররা যাতে আয় রোজগার করে জীবিকা নির্বাহ করতে পারে।

Spread the love
Link Copied !!