ইউক্রেন ইস্যুতে এবার গ্যাস লাইন বন্ধের হুঁশিয়ারি বাইডেনের


বন্ধন টিভি ডেস্ক
প্রকাশের সময় : ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২২, ২:২১ অপরাহ্ণ / ৯৯
ইউক্রেন ইস্যুতে এবার গ্যাস লাইন বন্ধের হুঁশিয়ারি বাইডেনের

ঢাকাঃ রাশিয়া যদি ইউক্রেনে হামলা করে তাহলে রাশিয়ার প্রধান একটি গ্যাস পাইপলাইন বন্ধের হুমকি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। নর্ড স্ট্রিম ২ নামে পরিচিত এই পাইপলাইনের মাধ্যমে রাশিয়ার গ্যাস জার্মানিতে যাওয়ার কথা রয়েছে। অবশ্য এই পাইপলাইনটি এখনও চালু হয়নি।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) ওয়াশিংটনে সফররত জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎসের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে নিজ দেশের এমন অবস্থানের কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎসের সঙ্গে বৈঠক করেন জো বাইডেন। পরে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় ডেমোক্র্যাটিক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, রাশিয়ার নর্ড স্ট্রিম ২ গ্যাস পাইপলাইনের ‘অবসান’ করবে যুক্তরাষ্ট্র।

সোমবার হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস। বৈঠক শেষে হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুমে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করেন দুই নেতা।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জো বাইডেন বলেন, ‘রাশিয়া যদি আক্রমণ চালায়, তাদের ট্যাংক ও সেনারা ফের ইউক্রেনের সীমান্ত অতিক্রম করে, তাহলে সেখানে আর নর্ড স্ট্রিম ২ থাকবে না। আমরা এটির অবসান ঘটাবো। সেই সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।’

ঠিক কিভাবে যুক্তরাষ্ট্র এই গ্যাস পাইপলাইনের অবসান ঘটাবে বা এটি বন্ধ করে দেবে সে বিষয়ে অবশ্য বিস্তারিত কিছু জানাননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তবে এর আগে গত মাসের শেষ দিকে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস জানান, রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা চালালে জার্মানির সঙ্গে মিলিতভাবে যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চিত করবে প্রকল্পটি যেন আর সামনে অগ্রসর না হয়। তিনি বলেন, আমি একেবারে স্পষ্ট করতে চাই, রাশিয়া যদি ইউক্রেনে যে কোনওভাবে হামলা চালায় তাহলে নর্ড স্ট্রিম-২ আর  সামনে এগোবে না।

বিতর্কিত এই পাইপলাইন প্রকল্পের মাধ্যমে বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে রাশিয়া থেকে সরাসরি জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহের কথা রয়েছে। ১ হাজার ২২৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পাইপলাইনটি নির্মাণে সময় লেগেছে পাঁচ বছর। এটি ইউক্রেনের ভেতর দিয়ে গেছে। এই পাইপলাইনের আয়ের ওপর নির্ভরশীল ইউক্রেন এখন রুশ হামলার আশঙ্কায় রয়েছে।

ইউক্রেন সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরেই প্রায় এক লাখ সেনাসদস্য মোতায়েন করে রেখেছে প্রতিবেশী দেশ রাশিয়া। যেকোনো মুহূর্তে রুশ সেনারা দেশটিতে আক্রমণ করতে পারে বলেও আশঙ্কা রয়েছে। যদিও ইউক্রেনে হামলার কোনো পরিকল্পনা নেই বলে বরাবরই দাবি করে আসছে মস্কো।

এর আগে গত জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে নর্ড স্ট্রিম ২ নামে পরিচিত এই গ্যাস পাইপলাইন বন্ধের বিষয়ে প্রথম হুমকি দেয় যুক্তরাষ্ট্র। সেসময় মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র নেড প্রাইস বলেছিলেন, ‘আমি পরিষ্কার করেই বলে দিতে চাই, রাশিয়া যদি ইউক্রেনে হামলা করে, তাহলে নর্ড স্ট্রিম ২ গ্যাস পাইপলাইন প্রকল্প আর সামনে এগোবে না।’

অবশ্য যুক্তরাষ্ট্র এই গ্যাস পাইপলাইন প্রকল্প কিভাবে বন্ধ করবে এবং এটি বন্ধ বা বাতিল করার ক্ষমতা ওয়াশিংটনের আছে কি না, সে বিষয়ে সেসময়ও বিশদ কোনো ব্যাখ্যায় যাননি নেড প্রাইস। তবে তিনি এটিই বলেছিলেন যে, ‘(ইউক্রেনে হামলা হলে) এই প্রকল্প যেন সামনে না এগোয়, তা নিশ্চিত করতে জার্মানির সঙ্গে কাজ করবো আমরা।’

উল্লেখ্য, ১১ হাজার কোটি মার্কিন ডলার ব্যয়ে ১২২৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পাইপলাইনটি নির্মাণ করতে রাশিয়ার পাঁচ বছর সময় লেগেছে। বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে এবং ইউক্রেনের ভেতর যাওয়া এই পাইপলাইন দিয়ে রাশিয়া থেকে জার্মানিতে আরও বেশি পরিমাণে গ্যাস রফতানি করতে চায় মস্কো।

তবে গ্যাস পাইপলাইনটি এখনও চালু হয়নি। জার্মান আইন না মানায় এর অনুমোদন আপাতত স্থগিত রয়েছে বলে গত বছরের নভেম্বর জানানো হয়েছিল।

Spread the love
Link Copied !!